২১শে জুন হতে যাচ্ছে বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ (Annular Solar Eclipse)

আগামী ২১ জুন অর্থাৎ আগামীকাল হতে যাচ্ছে বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ। বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের দর্শকদের জন্য এটি আংশিক গ্রহণ (Partial Solar Eclipse) হবে। অর্থাৎ আমরা বলয় না দেখতে পেলেও গ্রহণ দেখতে পাবো। দুঃখ করার কিছু নেই। কিন্তু দিল্লি এবং নেপালের কিছু অংশ থেকে বলয় সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে। 🌞➡️🌚
জানিয়ে রাখা ভালো যে পুরো বিশ্বে এই গ্রহণটিকে বলা হয় বলয় সূর্যগ্রহণ (Annular Solar Eclipse)। বাংলাদেশের সময় অনুযায়ী এই আংশিক গ্রহণটি চলবে মোট ৩ ঘন্টা ২৯ মিনিট। 😍😍😍

কলকাতার স্থানীয় সময় বাংলাদেশ স্থানীয় সময় থেকে ৩০ মিনিট পিছিয়ে। তাই আমাদের সময় থেকে হিসেব করে আপনারাও দেখতে পারবেন এই আংশিক সূর্যগ্রহণটি। 😍

♦️সূর্যগ্রহণ দেখার ক্ষেত্রে সতর্কতাঃ ❌

১। গ্রহণ চলাকালীন সময়ে ভুলেও কোনোভাবেই সূর্যের দিকে সরাসরি বা সানগ্লাস পরে তাকাবেন না।
২। সবসময় শিশুদের কে সোলার ফিল্টার ব্যবহার করতে দিবেন।
৩। সূর্যগ্রহণ দেখার বিশেষ চশমা ব্যবহার করুন। গ্রহণ দেখা চলাকালীন ভুলেও চশমা চোখ থেকে সরাবেন না।
৪। আংশিক সূর্যগ্রহণ চলাকালীন সময় ভুলেও ফিল্টার ছাড়া ক্যামেরা, টেলিস্কোপ, বাইনোকুলার কিংবা যেকোনো অপটিকাল ডিভাইস দিয়ে দেখতে যাবেন না।
৫। একইভাবে ভুলেও আপনি যদি সূর্যগ্রহণ দেখার বিশেষ চশমা পড়ে থাকেন তবে সেটি দিয়ে কোনো ক্যামেরা, টেলিস্কোপ বা অপটিকাল ডিভাইস দিয়ে দেখতে যাবেন না। এতে আগত সূর্যরশ্মি দিয়ে আপনার ফিল্টার এবং চোখ উভয়ের ক্ষতি হতে পারে।
৬। বিশেষভাবে বানানো সোলার ফিল্টার বা পিনহোল প্রজেকশনের মাধ্যমে গ্রহণ দেখা নিরাপদ। একটি কার্ডে ছিদ্র করে তাঁর বিপরীতে একটি অর্ধস্বচ্ছ কাগজ রেখে সহজেই পিনহোল প্রজেক্টর বানানো সম্ভব।
৭। প্রচলিত নিয়মে আমরা যেইভাবে সূর্যগ্রহণ দেখে থাকি যেমন: স্মোকড গ্লাস, এক্সরে ফিল্ম ইত্যাদি কখনোই নিরাপদ নয় বরং বিপদজনক। তাই এগুলো ব্যবহার না করাই উত্তম।

৮। যেকোনো ফিল্টার ব্যবহারের পূর্বে দেখে নেয়া উচিত তা ঠিকাছে কিনা। কোনো সমস্যা থাকলে তা ব্যবহার করা উচিত নয়।

Spread the love